আশুলিয়ায় জমি দখল করতে সন্ত্রাসীদের গুলিবর্ষণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত : বুধবার, ৩০ জুন, ২০২১
  • ৩২ প্রিয় পাঠক,সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন এবং মধুমতির সাথেই থাকুন

আশুলিয়ার মধ্য গাজিরচট এলাকায় আব্দুল মতিনের বিরুদ্ধে জমি দখল করতে ৫ রাউন্ড গুলিবর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আশুলিয়ার মধ্য গাজিরচট ঊষাপোলট্রি এলাকায় মঙ্গলবার সকালে এ গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

জমির মালিক আব্দুর রহিম খান জানান, ২০০২ সালে আশুলিয়ার মধ্য গাজিরচট এলাকায় পাঁচ একর জমি ক্রয় করে তিনি শান্তিপূর্ণভাবে বসবান করে আসছেন।

রহিম খান আরও বলেন, জমি বিক্রেতা মতিন মিয়া ও তার স্ত্রী মরিয়ম ইয়াসমিন গোপনে এ জমি প্রতারণা করে এ বছরের মে মাসে একটি বিদেশি প্রতিষ্ঠানের কাছে ভাড়া দেন।

বিদেশি ওই প্রতিষ্ঠানটি তাদের ভাড়াকৃত জমিতে ভুল তথ্য দিয়ে আনসার অনুমোদন করান। এ সময় আনসাররা গত ২৩ মে রহিম খানের ক্রয়কৃত জমির কেয়ারটেকার ও লোকজনকে তাড়িয়ে দিতে চাপ প্রয়োগ করেন।

এ ঘটনা রহিম খান আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক ও ঢাকা জেলা কমান্ড্যান্টের কার্যালয়ে তার জমির কাগজপত্র দেখিয়ে আনসার প্রত্যাহারের আবেদন জানান। এ সময় এমএ মতিন আনসার মহাপরিচালকের কাছে জমির কোসো কাগজপত্র দেখাতে না পারায় আনসার প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।

এদিকে বিদেশি প্রতিষ্ঠানটিকে জমিটি মতিনের দখলে দেখাতে মতিন বাহিনী মরিয়া হয়ে উঠেছে। মঙ্গলবার সকালে ২০-২৫ জন সন্ত্রাসী নিয়ে ওই জমিতে পাহারারত কেয়ারটেকার ও লোকজনের ওপর হামলা চালায়।

এ সময় মতিন বাহিনী বাড়ির ক্রেতা রহিমের লোকজনকে ভয়ভীতি দেখাতে ৫ রাউন্ড গুলি করে। এ সময় আশপাশের লোকজন ভীতসন্ত্রাস্ত হয়ে দিগ্বিদিক ছোটাছুটি করে।

গুলির খবর পেয়ে আশুলিয়া থানা পুলিশ ও র‌্যাব ৪-এর সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এলাকাবাসী জানান, রহিম খান ও এমএ মতিনের মধ্যে এ জমি নিয়ে যে কোনো সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ বেঁধে যেতে পারে।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার এসআই ফরহাদ ইবনে করিম বলেন, মধ্য গাজিরচট এলাকার একটি বাড়ির বাউন্ডারির মধ্যে কনস্ট্রাকশনের কাজ করছিলেন শ্রমিকরা। এ সময় অজ্ঞাত লোকজন এসে গুলিবর্ষণ করে শ্রমিকদের তাড়িয়ে দেয়। ঘটনাটির তদন্ত চলছে।

Please Share This Post in Your Social Media

মধুমতি টেলিভিশনের অন্যান্য খবর